Home » বাছাইকৃত » মানবপাচার বন্ধে আঞ্চলিক সহযোগিতার আহ্বান

মানবপাচার বন্ধে আঞ্চলিক সহযোগিতার আহ্বান

যেসব দেশ থেকে অবৈধ পথে অভিবাসীরা আসেন সেসব দেশই নয়; যেসব দেশে এসব অভিবাসীরা যান তাদেরও মানব পাচার বন্ধের ক্ষেত্রে যথেষ্ট করণীয় আছে বলে মনে করেন থাই প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চ্যান ওঁচা। থাই প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের উল্লেখ করে দেশটির সংবাদমাধ্যম ব্যাংকক পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, কেবল বাংলাদেশ আর মিয়ানমারই নয়; বরং এসব দেশ থেকে রোহিঙ্গারা যেখানে যায় তাদেরও অনেক কিছু করার আছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। রোহিঙ্গাদের মূল গন্তব্যস্থল মালয়েশিয়া আর অস্ট্রেলিয়া বলে উল্লেখ করেছে ব্যাংকক পোস্ট।

Thailandত্রিদেশীয় বৈঠক আহ্বান
থাইল্যান্ডের জঙ্গলে একের পর এক মানব পাচার শিবির ও মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় আঞ্চলিক মানব পাচার সঙ্কট সমাধানের লক্ষ্যে ত্রিদেশীয় বৈঠক আহ্বান করেছেন থাই প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চ্যান ওঁচা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম রয়টার্সকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ওঁচা বলেন, দুই প্রতিবেশী দেশ মালয়েশিয়া ও মিয়ানমারের সঙ্গে বৈঠকের ব্যাপারে আলোচনা করতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ওঁচা জানান, চলতি মাসের শেষ নাগাদ এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে পারে। একইসঙ্গে সঙ্কট সমাধানে একটি বহুপাক্ষিক শীর্ষ সম্মেলনেরও ডাক দিয়েছেন ওঁচা।

বৈঠকের ব্যাপারে নিশ্চিত করেনি মালয়েশিয়া আর মিয়ানমার, সম্মেলনে যোগ দিতে আগ্রহী অস্ট্রেলিয়া
মিয়ানমারের অভিবাসন মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী সচিব মিন্ট কেয়িং বলেন, এখনও থাইল্যান্ড সরকারের পক্ষ থেকে বৈঠকের ব্যাপারে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়নি। মিয়ানমারের মানব পাচারবিরোধী পুলিশ বাহিনীর প্রধান উইন নাইং তুন জানান, ‘থাই সরকারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগাযোগ করা হলে আমরা বৈঠকের ব্যাপারে আগ্রহী হবো বলে আমি আশা করি।’ তবে এ ব্যাপারে কোন মন্তব্য করেনি মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এদিকে থাইল্যান্ডে বহুপাক্ষিক শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলে তাতে যোগ দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলিয়া। থাই প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চ্যান ওঁচার সঙ্গে বৈঠকের পর অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলিয়া বিশপ এ কথা জানান। কোন দেশের একার পক্ষে মানব পাচার ঠেকানো সম্ভব নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, ২০০২ সালের বালি প্রসেস অনুযায়ী, মানব পাচার ও অভিবাসীদের অবৈধ আনাগোনা বন্ধে বাংলাদেশ, মিয়ানমার, মালয়েশিয়াসহ ৪৫টি দেশের একসাথে কাজ করার কথা। মানব পাচার বন্ধে তাই আঞ্চলিক উদ্যোগ আহ্বান করেছেন তিনি।

Security forces and rescue workers inspect a mass grave at a rubber plantation near a mountain  in Thailand's southern Songkhla province May 7, 2015. REUTERS/Surapan Boonthanomথাই কর্মকর্তাদের সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করলেন ওঁচা
শুক্রবার রাতে টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে মানব পাচারের ঘটনায় থাই সরকারি কর্মকর্তাদের সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করেন ওঁচা। তিনি জানান মানব পাচারের ঘটনায় এরইমধ্যে একজন মেয়র, একজন ডেপুটি মেয়রকে গ্রেফতার এবং ৫০ জন পুলিশ কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে। এর আগে থাইল্যান্ডের ডেপুটি ন্যাশনাল পুলিশের প্রধান জানান, মানব পাচারের ঘটনার মূল হোতা হিসেবে অভিযুক্ত পেদাং বাসারের মেয়র বাংজোং পংপল আত্মসমর্পণ করেছেন। নিজের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলোও অস্বীকার করেছেন বাংজোং।

‘গেল তিন মাসে মানব পাচারের শিকার অন্তত ৩শ জনের মৃত্যু’
শুক্রবার জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর-জানায় চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে ২৫ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম ও বাংলাদেশিকে সাগরপথে পাচারের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আর এ সংখ্যা আগের বছরের চেয়ে দ্বিগুণ উল্লেখ করে উদ্বেগ জানিয়েছে সংস্থাটি। পাচারকারীদের কবল থেকে বাঁচা লোকজনের বরাতে ইউএনএইচসিআর-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘এ বছরের প্রথম তিন মাসে সাগরে ক্ষুধা, পানিশূন্যতা ও নৌকায় থাকা দালালদের নির্যাতনে ৩০০ জন মারা গেছেন বলে ধারণা করছে তারা।’

Thailand3থাইল্যান্ডের জঙ্গল থেকে আরও ১১১ জন অভিবাসী উদ্ধার
শুক্রবার বিকেলে থাইল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলীয় শংখলা প্রদেশের রত্তাফুম এলাকার সীমান্তবর্তী রাবার বাগান থেকে বাংলাদেশ আর মিয়ানমারের ১শ ১১ নাগরিককে জীবিত উদ্ধার করেছে সেদেশের পুলিশ। থাইল্যান্ডের সংবাদমাধ্যম ব্যাংকক পোস্ট এবং চ্যানেল নিউজ এশিয়া জানায়, উদ্ধারের সময় শংখলার রাত্তাফুম জেলার থা চামওয়াং এলাকার রাবার বাগানে অভিবাসীরা ক্ষুধার্ত ও ক্লান্ত অবস্থায় হাঁটছিল। উদ্ধার পাওয়া ব্যক্তিরা পুলিশকে জানায়, পাচারকারীরা তাদের নিজ দায়িত্বে হেঁটে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য বলে এখানে ছেড়ে পালিয়ে গেছে। তারা জানায়, মিয়ানমার থেকে রওনা হয়ে সমুদ্রপথে থাইল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ সাতুনে পৌঁছায় তারা। এরপর সেখান থেকে ‘মালয়েশিয়া’ যাওয়ার উদ্দেশে ১০ দিন ধরে হাঁটছিল উদ্ধারকৃতরা।

টেকনাফে তিন শীর্ষ মানব পাচারকারী নিহত হওয়ার দাবি পুলিশের
টেকনাফে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টায় বন্দুকযুদ্ধে টেকনাফ মহেষখালীয়াপাড়া সাগর সৈকতের বিচ হ্যাচারি এলাকায় ৩ শীর্ষ মানব পাচারকারী নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ। নিহতরা হচ্ছে শাহপরীর দ্বীপ বাজারপাড়ার প্রয়াত সুলতান আহমদের ছেলে ধলু হোসেন (৫৫), সাবরাং কাটাবনিয়া এলাকার আবদুল মাজেদের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩০) ও হারিয়াখালী এলাকার কবির আহমদের ছেলে জাফর আলম (৩২)।

গেল সপ্তাহে থাইল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলীয় গভীর জঙ্গলে অন্তত ছয়টি বন্দিশিবির এবং সেখানকার কবর থেকে ৩২ জন বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গা অভিবাসীর দেহাবশেষ ও কঙ্কাল উদ্ধার করা হয়। এরপর থেকে মানব পাচার বন্ধ করা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ আর্ন্জাতিক সম্প্রদায়ের চাপের মুখে রয়েছে থাইল্যান্ড আর মালয়েশিয়া।