Home » বাছাইকৃত » বাংলাদেশের সৈকতগুলোয় কিভাবে যাবেন, কোথায় থাকবেন

বাংলাদেশের সৈকতগুলোয় কিভাবে যাবেন, কোথায় থাকবেন

শীত চলে এলো। সাগরসৈকতে বেড়াতে যাওয়ার জন্য এর চেয়ে ভালো সময় আর হয় না। সৈকত ভ্রমণের নানা তথ্য দিয়ে সাহায্য করছেন মুস্তাফিজ মামুন

Coxs-Bazar

কক্সবাজার

পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকতটি দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় পর্যটনকেন্দ্র। বছরজুড়ে পর্যটকদের আনাগোনা থাকে এখানে।

কিভাবে যাবেন

সড়ক ও আকাশপথে সরাসরি কক্সবাজার আসা যায়। ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে সরাসরি কক্সবাজারগামী শীতাতপনিয়ন্ত্রিত বাস সার্ভিস হলো-গ্রীন লাইন পরিবহন (ঢাকা-০২-৩৯৪২৫৮০, ০২-৯৩৩৯৬২৩, চট্টগ্রাম-০৩১-৬৩০৫৫১, ০১৭৩০০৬০০৮৫, কক্সবাজার-০৩৪১-৬৩৭৪৭, ০৩৪১-৬২৫৩৩)। সোহাগ পরিবহন (ঢাকা-০২-৯৩৪৪৪৭৭, ০১৭১১৬১২৪৩৩, চট্টগ্রাম-০৩১-৬১৬৫২০০, ০১৭১১৭৯৮৩৪৪, কক্সবাজার-০৩৪১-৬৪৩৬১, ০১৭১১৪০০২২২)। সৌদিয়া পরিবহন (ঢাকা-০১৯১৯৬৫৪৯২৬-৩৫, চট্টগ্রাম-০৩১-২৮৬৩৩৯৯, ০১৯১৯৬৫৪৯০২, কক্সবাজার-০১৯১৯৬৫৪৯১৬-১৭)। টি আর ট্রাভেলস (ঢাকা-০২-৮০৩১১৮৯, ০১১৯১৮৬৩৬৭৪, চট্টগ্রাম-০৩১-৬১১৮৯৬, ০১১৯১৮৬৩৬৭৬, কক্সবাজার- ০১১৯১৮৬৩৬৮০-৮১)। হানিফ এন্টারপ্রাইজ (ঢাকা-০২-৯১৩৫০১৮, ০১৭১৩৪০২৬৭০, চট্টগ্রাম-০১৭১৩৪০২৬৬৩, কক্সবাজার-০১৭১৩৪০২৬৬৮-৯)। বাগদাদ পরিবহন (ঢাকা-০২-৭১০০৫৩১, ০১৭৩০০৪৬০৫০, চট্টগ্রাম-০৩১-২৮৫৪৬৭৬, ০১৭৩০০৪৬০১০, কক্সবাজার-০৩৪১-৫১১৬১, ০১৭৩০০৪৬০৬০) এসব বাসে ঢাকা-কক্সবাজারের এক পথের ভাড়া ১১০০-১৬০০ টাকা। এ ছাড়া কক্সবাজারের পথে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে সরাসরি চলাচলকারী নন এসি বাস সার্ভিস হলো-এস আলম সার্ভিস (ঢাকা-০২-৯৩৩১৮৬৪, চট্টগ্রাম-০৩১-৬১১০৩৭, কক্সবাজার-০৩৪১-৬৪২৮৬, ৬২৯০২)। সৌদিয়া পরিবহন (ঢাকা-০২-৯৩৩৮৫১০, চট্টগ্রাম-০৩১-৬৩৫০০৭, কক্সবাজার-০১৯১৯৬৫৪৯১৭)। শ্যামলী পরিবহন (০২-৭১০১৯১০, ৯১৪১০৪৭, চট্টগ্রাম-০৩১-৬৩৫৭৩০, ০১৭১২৫৮৫০৭১, কক্সবাজার-০১৮১৮২০৯৬২৭, ০১৭২০৫৫১৮৮২)। ইউনিক পরিবহন (ঢাকা-০২-৯০০২৭১০, কক্সবাজার- ০১৯১২৭৫৩২৮)। ঈগল পরিবহন (ঢাকা-০২-৮১২৮৪২৬, চট্টগ্রাম-০৩১-৭৫২২৯৯, কক্সবাজার-০১১৯৫৪৫১৯৫৯)। হানিফ এন্টারপ্রাইজ (ঢাকা-০২-৮১২৩৪৩৯, ০১৭১৩০৪৯৫৫৭, চট্টগ্রাম-০৩১-৬৩৮৩২২, কক্সবাজার- ০১৭১৩৪০২৬৩৭)। এসব বাসে ভাড়া ৪৫০-৬৫০ টাকা।

ঢাকা থেকে কক্সবাজারে বিমানেও যেতে পারেন।

বিমান সংস্থাগুলো হলো-

বাংলাদেশ বিমান (ঢাকা-০২-৯৫৬০১৫১-১০, চট্টগ্রাম-০৩৪১-৬৩৪৬১, কক্সবাজার-০৩৪১-৬৪০১৯)। ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (ঢাকা-০২-৮৯৫৭৬৪০, চট্টগ্রাম-০৩৪১-০১৭১৩৪৮৬৬৫২, কক্সবাজার-০১৭১৩৪৮৬৬৫১)। রিজেন্ট এয়ারওয়েজ (ঢাকা-০২-৮৯৫৩০০৩, চট্টগ্রাম-০৩১-২৫১৩৫৮১, কক্সবাজার-০১৭৩০৩৫৮৮১০)। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী ঢাকা থেকে কক্সবাজারের এক পথের উড়াল মূল্য ৫০০০ টাকা থেকে শুরু।

St_Martin_Island_Boat

টেকনাফ

কক্সবাজার থেকে সড়কপথে এ জায়গার দূরত্ব প্রায় ৮৫ কিলোমিটার। পাহাড়, নদী আর সমুদ্রের অনন্য এক মিলনস্থল হলো টেকনাফ।

কিভাবে যাবেন

কক্সবাজার থেকে বাস ও মাইক্রোবাসে টেকনাফ আসা যায়। বাসে ভাড়া ৮০-১২০ টাকা। মাইক্রোবাসে ১০০-১৫০ টাকা। কক্সবাজার থেকে টেকনাফের বাস ছাড়ে আন্তজিলা বাস টার্মিনাল থেকে আর মাইক্রোবাসগুলো শহরের কলাতলী এবং টেকনাফ বাইপাস মোড় থেকে। ঢাকা থেকেও সরাসরি টেকনাফ যায় সেন্ট মার্টিন সার্ভিস (০১৭১১৩২১১৪৩, ০১৮২৩০০৪৪৮৮), সিলভার লাইন পরিবহনের এসি বাস। ভাড়া ১১৫০-১২৫০ টাকা। ঢাকা থেকে শ্যামলী (০২-৭১৯৪২৯১), এস আলম, সৌদিয়া, হানিফ ইত্যাদি পরিবহনের নন এসি বাস যায় টেকনাফ। ঢাকার ফকিরাপুল, সায়েদাবাদ থেকে সাধারণত এ পথের বাসগুলো ছাড়ে। ভাড়া ৭০০-৮০০ টাকা।

কোথায় থাকবেন

টেকনাফে থাকার হোটেলে প্রতিরাতের জন্য ঘর পাওয়া যাবে ৩০০ থেকে সাড়ে চার হাজার টাকা পর্যন্ত।

সেন্ট্রাল রিসোর্ট লিমিটেড : ফোন-০১৮৩৮৩৭৯৩৭২-৭৩। বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের মোটেল নে টং : যোগাযোগ ০৩৪২৬-৭৫১০৪, ০১৭১২৪৪৯৫৫৩, ০১৯৪২০৯৮২০০। হোটেল স্কাইভিউ : ০১৮১৯০৯৭৯১০। হোটেল হিলটপ ০১৭২৫২৭০৪৩৫। হোটেল সম্রাট ০১৭১৬৬৫৯৩৮৯।

Patenga-Beach

পতেঙ্গা

চট্টগ্রাম শহরের দক্ষিণ প্রান্তে সৈকতটির অবস্থান। শহর থেকে দূরত্ব প্রায় ২২ কিলোমিটার। এখানে দাঁড়িয়ে বন্দরের বহির্নোঙরে অপেক্ষমাণ জাহাজ দেখা যায়। সন্ধ্যার পর সেগুলোকে মনে হয় সমুদ্রের মাঝে আলো ঝলমলে শহর।

কিভাবে যাবেন

প্রথমে যেতে হবে চট্টগ্রাম। সেখান থেকে পতেঙ্গার বেবি ট্যাক্সি ভাড়া ২০০-২৫০ টাকা। বাস কিংবা টেম্পোতে গেলে ভাড়া ৪০-৫০ টাকা। সৈকতের কাছেই থাকার জন্য মনোরম জায়গা বাটারফ্লাই পার্ক রেস্ট হাউস। ভাড়া চার হাজার থেকে সাত হাজার টাকা। ফোন- ০১১৯৫০১০৫০০, ০১১৯৫০১০৬০১। তবে চট্টগ্রামের কোনো হোটেল থেকেও আসা যায়।

চট্টগ্রামে কিভাবে যাবেন

ঢাকা থেকে সড়ক, রেল ও আকাশপথে যাওয়া যায় চট্টগ্রাম শহরে। গ্রিনলাইন (০২-৭১০০৩০১), সোহাগ (০২-৯৩৪৪৪৭), সৌদিয়া (০১১৯৭০১৫৬১০), টি আর (০২-৮০৩১১৮৯), হানিফ (০১৭১৩৪০২৬৭১) ইত্যাদি পরিবহনের এসি বাস যায় চট্টগ্রামে। ভাড়া ৮৫০-১১০০ টাকা। আর এস আলম, সৌদিয়া, ইউনিক, শ্যামলী, হানিফ, ঈগল প্রভৃতি পরিবহনের সাধারণ বাসে ভাড়া ৪০০-৫০০ টাকা। রেলপথে ঢাকা-চট্টগ্রামের পথে মহানগর প্রভাতী ঢাকা ছাড়ে সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে, চট্টলা এক্সপ্রেস সকাল ৯টা ২০ মিনিটে, মহানগর গোধূলি ঢাকা ছাড়ে বিকেল ৩টায়, সুবর্ণ এক্সপ্রেস ঢাকা ছাড়ে বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে, তূর্ণা ঢাকা ছাড়ে রাত ১১টায়। ভাড়া ১৬০ থেকে ১১০০ টাকা। এ ছাড়া ঢাকা থেকে বাংলাদেশ বিমান (০২-৯৫৬০১৫১-১০), জিএমজি এয়ারলাইনস (০২-৮৯২২২৪৮) ও ইউনাইটেড এয়ার (০২-৮৯৫৭৬৪০), রিজেন্ট এয়ারে (০২-৮৯৫৩০০৩) সরাসরি যাওয়া যায়। সিলেট থেকে সড়ক ও রেলপথে চট্টগ্রাম আসা যায়। সড়কপথে গ্রিনলাইন পরিবহনের এসি, নন এসি বাস যায় চট্টগ্রাম। সিলেট রেলওয়ে স্টেশন থেকে সপ্তাহের শনিবার ছাড়া প্রতিদিন সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে আন্তনগর পাহাড়িকা এক্সপ্রেস, সপ্তাহের রবিবার ছাড়া প্রতিদিন রাত ৯টা ২০ মিনিটে আন্তনগর উদয়ন এক্সপ্রেস এবং সপ্তাহের প্রতিদিন রাত ১০টা ৩০ মিনিটে মেইল ট্রেন জালালাবাদ এক্সপ্রেস ছেড়ে যায় চট্টগ্রামের উদ্দেশে। ভাড়া ১৭৫ থেকে ১২০০ টাকা।

কোথায় থাকবেন

হোটেল আগ্রাবাদ : ফোন-০৩১-৭১৩৩১১-৯, হোটেল পেনিনসুলা (পাঁচ তারকা), ফোন-০৩১-২৮৫০৮৬০, হোটেল পেনিনসুলা : ফোন +৮৮০৩১২৮৫০৮৬০। হোটেল মেরিডিয়ান, ফোন-০৩১-৬৫৪০০০-১, ৬৫২০৫০। হোটেল টাওয়ার ইন, ফোন-০৩১-৮৪২৬৯১-২। হোটেল এশিয়ান, ফোন-০৩১-৬৩৬৩৮৩, ৬৩৭৮৭২। হোটেল হারবার ভিউ, ফোন-০৩১-৬১৭৮৬৮, ৬১৫০৩৪, হোটেল সেন্ট মার্টিন, ফোন ০৩১-৭২৫৯৬১-২, হোটেল গোল্ডেন ইন, ফোন-০৩১-৬১১০০৪-১১।

Kuakata

কুয়াকাটা

এ সৈকত থেকে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত দুটোরই দৃশ্য দেখা যায়। ভালোভাবে সূর্যোদয় দেখা যায় সৈকতের গঙ্গামতির বাঁক থেকে আর সূর্যাস্ত দেখা যায় পশ্চিম সৈকত থেকে।

কিভাবে যাবেন

লঞ্চে কিংবা বাসে বরিশাল গিয়ে সেখান থেকে কুয়াকাটা। ঢাকার সদরঘাট থেকে বিআইডাব্লিউটিএর রকেট স্টিমার পিএস মাহমুদ, পিএস অস্ট্রিচ, পিএস লেপচা, পিএস শেলা ও পিএস টার্ন (০২-৯৫৫৯৭৭৯) যায় বরিশালে। ঢাকার সদরঘাট থেকে প্রতিদিন রাতে ছাড়ে এমভি সুন্দরবন (০১৭১৩০৩২০৮৯, ০১৭৮৬৬৪৭০০), এমভি সুরভী (০১৭১৩৪৫০১৪৫, ০১৭১১৩৩২০৩২), এমভি দ্বীপরাজ (০১৭২৭৭০০৭৭৭), এমভি কীর্তনখোলা (০১৭২৭৭০০৭৭৭), এমভি কালাম খান, এমভি পারাবাত (০১৭১১৩৩০৬৪২, ০১৭১১৩৪৪৭৪৭) ইত্যাদি। ভাড়া ২০০ থেকে সাড়ে পাঁচ হাজার টাকা। ঢাকার গাবতলী থেকে সাকুরা পরিবহন (০২৮০১৪৭০২), সুরভী পরিবহন, দ্রুতি পরিবহন (০২৯০০২৯৮৯), শ্যামলী পরিবহন (০২৯১৪১০৪৭), হানিফ এন্টারপ্রাইজ (০২৯১৩৫০১৮) ইত্যাদি বাস সরাসরি বরিশাল যায়। ভাড়া ৩৫০-৪৫০ টাকা। বরিশালের রূপাতলী বাস স্টেশন থেকে সকাল-সন্ধ্যা এক ঘণ্টার ব্যবধানে বাস যায় কুয়াকাটায়। ভাড়া ১৫০-২০০ টাকা। ঢাকা থেকে লঞ্চে পটুয়াখালী এসেও বাসে কুয়াকাটা আসা যায়। ঢাকার সদরঘাট থেকে পটুয়াখালী রুটে চলাচল করে এমভি দ্বীপরাজ, সৈকত, সুন্দরবন, রেড সান ইত্যাদি লঞ্চ। ভাড়া ১৭৫ থেকে দুই হাজার টাকা। পটুয়াখালী বাস স্টেশন থেকে প্রতি ঘণ্টায় কুয়াকাটার বাস ছাড়ে। ভাড়া ৮০-১০০ টাকা। কমলাপুর বিআরটিসি বাস স্টেশন থেকে প্রতিদিন সকাল ও সন্ধ্যায় ছাড়ে সরকারি পরিবহন সংস্থার বাস। আর গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে যায় সাকুরা পরিবহন (ঢাকা ০১১৯০৬৫৮৭৭২, কুয়াকাটা ০১৭২৬৫২৮৪৯০), সুরভী, দ্রুতি, মেঘনা, সৌদিয়া ইত্যাদি নন-এসি বাস। ভাড়া ৫৫০-৭৫০ টাকা। ঢাকা থেকে কুয়াকাটার বাসগুলো ছাড়ে রাত ৯টায় এবং কুয়াকাটা থেকে ঢাকার উদ্দেশে আসে সন্ধ্যা ৬টা ৩০ থেকে ৭টা ৩০ মিনিটে।

কোথায় থাকবেন

প্রতি রাতে হোটেল ভাড়া দিতে হবে ২০০ থেকে সাড়ে চার হাজার টাকা পর্যন্ত। পর্যটন হলিডে হোমস : যোগাযোগ +৮৮-০৪৪২৮-৫৬০০৪। হোটেল বনানী প্যালেস : ০৪৪২৮৫৬০৪২, ০১৭১৩৬৭৪১৮৯, ০১৭১৩৬৭৪১৯২। হোটেল কুয়াকাটা ইন : ০৪৪২৮৫৬০৩১, ০১৭৫০০০৮১৭৭-৭৮, ০১৫৫৫০১২৫০০। হোটেল নীলাঞ্জনা : ০৪৪২৮৫৬০১৭-৮, ০১৭১২৯২৭৯০৪। হোটেল স্কাই প্যালেস : ০৪৪২৮৫৬০২৬-৭, ০১৭২৭৫০৭৪৭৯। হোটেল গোল্ডেন প্যালেস : ০৪৪২৮৫৬০০৫। হোটেল মোহনা ইন্টারন্যাশনাল : +৮৮০৪৪২৮৫৬১৭৫-৬, +৮৮০১৭৫০০৯৫৩৪০, ০১৭৫০০৯৫৩৩৩৮। কুয়াকাটা গেস্ট হাউস : +৮৮-০৪৪২৮৫৬০২৪, ০১৭১৯৫৮৯৭৫২, ০১৭৩০১৮৯১৫২। হোটেল স্কাই প্যালেস : +৮৮-০৪৪২৮৫৬০২৬-৭, ০১৭২৭৫০৭৪৭৯, ০১৯১৫২২৯৯২৩। সাগরকন্যা রিসোর্ট লিমিটেড : +৮৮-০৪৪০৮৫৬০২০, ০১৭১১১৮১৭৯৮, ০১৭২১০৭৩৭৬৩। বিশ্বাস সি প্যালেস : +৮৮০১৭৩০০৯৩৩৫৬, ০১৭৩০০৯৩৩৬৩। কিংস হোটেল : +৮৮০১৭১৩২৭৭৬৩০, ০১৯৭১৫২০০৩৪। আনন্দবাড়ী গেস্ট হাউস : +৮৮০১৭১৬৯১৬১৭৩, ০১৭১১০০৬০২৬। বেঙ্গল গেস্ট হাউস : +৮৮০১৮১১৪৪৫১৩১, ০১৮১১৪৪৫০১০।

হোটেলে শৈবাল : +৮৮ ০৪৪২৮ ৫৬০৪৫, ০১৯২৯২৯১৭৮৫।
হোটেল ঘোষ : +৮৮০১১৯৮১৪৩৮৮৮, ০১১৯০৩১৩১৩২।
হোটেল সাগর : +৮৮ ০৪৪২৮৫৬০৬৯, ০১৫৫৮৩৭৮১০৯।
হোটেল আল হেরা : +৮৮ ০৪৪২৮৫৬০৫৪, ০১৭১২৪৯৪৮০৩, ০১৮১৪৭৩২৬৩১।
হোটেল সৈকত : ০১৯১৪৭২১৭১৬, ০১৭১৮৩১০৯৬৮।
হোটেল সি প্যালেস : +৮৮০১৭২৫২৫৯৫৬৬, ০১৭১৯০৮৪০২২।
হোটেল সি কুইন : +৮৮০১৭১৯০৮৫৩৫৬, ০১৭১৮২১৪৩৬১।
খেপুপাড়া ফ্যামিলি হাউস : +৮৮ ০৪৪২৮৫৬০৮১-২, ০১৯২৩১৯৭৭৩৫।
হোটেল সান ফ্লাওয়ার : +৮৮০১৭৩৩৬১৮২৩৮, ০১৯২৭০৮৭৪৮।
হোটেল রাফি : +৮৮০১৭১৫১৫৪৯৬৪।
সৌজন্যে : কালের কণ্ঠ