Home » স্পোর্টস ট্যুরিজম » অর্থ নয়, খেলতে পারাটাই হবে বড় পাওনা : মুস্তাফিজ

অর্থ নয়, খেলতে পারাটাই হবে বড় পাওনা : মুস্তাফিজ

ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বাণিজ্যিক টুর্নামেন্ট ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। ষষ্ঠ বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে আইপিএলে দল পেয়েছেন ‘কাটারবয়’ মুস্তাফিজুর রহমান। ৫০ লাখ রূপি ভিত্তিমূল্য থেকে ১ কোটি ৪০ লাখ রূপিতে মুস্তাফিজকে দলে কিনে নিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

মু্স্তাফিজের আগে মাশরাফি বিন মুর্তজা, তামিম ইকবাল, মোহাম্মদ আশরাফুল, আবদুর রাজ্জাক ও সাকিব আল হাসান আইপিএলে দল পেয়েছিলেন। সাকিব আল হাসান গত পাঁচ বছর ধরে আইপিএলের নিয়মিত মুখ।

শনিবার বেঙ্গালুরুতে আইপিএলের নিলাম চলাকালিন সময়ে মুস্তাফিজুর রহমান ঢাকায় বিজ্ঞাপণ চিত্রের শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন। পূর্নবাসন প্রক্রিয়ায় থাকায় আপাতত বিশ্রামে আছেন বাহাতি এ পেসার। এজন্য ক্রিকেটের বাইরের কাজগুলো অবসরেই সেরে নিচ্ছেন। আইপিএলের নিলাম যে আজ সেটা মাথায় ছিল না তার, ‘জানতামই তো না আজ যে নিলাম। ছুটিতে থাকায় একটা বিজ্ঞাপণের শুটিংয়ে আসছি। মোবাইলে মেসেজ দেখলাম যে আমি দল পেয়েছি।’

Mustafizur-Rahman-2

দল পাবেন কি পাবেন না সেটা নিয়েও মুস্তাফিজের কোনো আগ্রহ ছিল না! দল পাওয়ার পরও বাড়তি কোনো উচ্ছ্বাস নেই বিস্ময়কর এ ক্রিকেটারের। শুটিংয়ের পর নিজের অনুভূতি জানাতে গিয়ে মুস্তাফিজ বলেন, ‘দল পাব কি পাব না সেটা নিয়ে কোনো চিন্তা ছিল না। এখন পেয়েছি বলে এটা বলছি না। ভালো লাগছে যে আমাকে নিয়েছে। অনেকেই বলছিল যে আমাকে এবার নেওয়া হতে পারে।’

প্রতিভা ও সুনাম অনুযায়ী মুস্তাফিজ খুব কম দামই পেয়েছে। ৫০ লাখ রূপি থেকে ১ কোটি ৪০ লাখ রূপিতে মুস্তাফিজকে নেয় সানরাইজার্স হায়দরাবাদই। শুরুতেই তাকে নিতে ডাক দেয় হায়দরাবাদ। পরক্ষণই মুস্তাফিজকে নিতে যোগ দেয় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। হায়দরাবাদ ও বেঙ্গালুরু লড়াই বেশ জমে উঠে। ততক্ষণে মুস্তাফিজের দাম কোটি ছাড়িয়ে। ১ কোটি ৩০ লাখ এসে থামে দুই দল। হায়দরাবাদ আর ১০ লাখ রূপি বাড়ালেও বিরাট কোহলির বেঙ্গালুরু সেখানেই থেমে থাকেন। সঞ্চালকের তিন ডাকের পর কোনো দল সাড়া না দেওয়ায় হায়দরাবাদেই বিক্রি হন মুস্তাফিজ। হায়দরাবাদের মেন্টর ভারতের প্রাক্তন ব্যাটসম্যান ভিভিএস লক্ষণ মুস্তাফিজকে নেওয়ায় মালিকপক্ষের শুভেচ্ছা পেয়েছেন তাৎক্ষণিক।

অর্থের পরিবর্তে আইপিএলে খেলার সুযোগকে বড় করে দেখছেন মুস্তাফিজ। তার ভাষ্য, ‘আইপিএলে খেলার সুযোগ একটি বড় অভিজ্ঞতা। আমি অর্থটাকে বড় করে দেখছি না। সুস্থ থেকে যদি খেলতে পারি সেটাই হবে বড় পাওনা। আমি তাতেই খুশি।’

হায়দরাবাদে মুস্তাফিজ সতীর্থ হিসেবে আরও পেয়েছেন শিখর ধাওয়ান ও যুবরাজ সিংকে। সঙ্গে রয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার, ওয়েন মরগান, কেন উইলিয়ামসনকে। মুস্তাফিজের সঙ্গে পেস অ্যাটাকে রয়েছেন আশিস নেহরা, ট্রেন্ট বোল্ট ও বীরেন্দার স্রানকে। চারজনই বাহাতি পেস বোলার।

আইপিএলের আগে পাকিস্তান সুপার লিগে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন মুস্তাফিজ। ৫০ হাজার ডলারে তাকে দলে নিয়েছিল লাহোর কালান্দার্স। কিন্তু কাঁধের চোটের কারণে খেলতে পারছেন না এই টুর্নামেন্টে। সৌজন্যে : রাইজিংবিডি