Home » ডিটিসি ভ্রমণ বার্তা » অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাসে নতুন দুই ভিসার আইন জারি

অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাসে নতুন দুই ভিসার আইন জারি

কাউসার খান, সিডনি, অস্ট্রেলিয়া

অস্ট্রেলিয়ায় ১৬ নভেম্বর চালু হতে যাচ্ছে দেশটিতে স্থায়ীভাবে বসবাস ও কাজের সুযোগ নিয়ে আসা নতুন দুটি ভিসা। ইতিমধ্যে নতুন এ ভিসার লিখিত আইন জারি করেছে দেশটির অভিবাসন বিভাগ।

এই নতুন স্কিলড রিজওনাল প্রভিশনাল ভিসাগুলোয় দক্ষ অভিবাসীরা দেশটিতে প্রথমে অস্থায়ী ও পরে স্থায়ীভাবে বসবাস এবং কাজ করতে পারবেন। একই সঙ্গে ১৬ নভেম্বর থেকে দেশটির বর্তমান প্রচলিত আঞ্চলিক ভিসা সাবক্লাস ৪৮৯ ও ১৮৭ বাতিল করছে অভিবাসন বিভাগ।

প্রচলিত রিজওনাল ভিসার বদলে নতুন ও পরিবর্তিত আবশ্যিক শর্ত নিয়ে চালু হবে সাবক্লাস ৪৯১ ও ৪৯৪ ভিসা। আর এ দুই ভিসাধারীরা অন্তত তিন বছর আঞ্চলিক শহরের বসবাসের পর স্থায়ী বসবাসের জন্য আবেদন করতে পারবেন সাবক্লাস ১৯১ স্থায়ী ভিসার জন্য।

প্রতিবছর প্রায় ১৪ হাজার আবেদন গ্রহণ করার কথা রয়েছে নতুন সাবক্লাস ৪৯১ ভিসায়। এটি পয়েন্ট টেস্টভিত্তিক ভিসা। অর্থাৎ শিক্ষা, বয়স, অভিজ্ঞতা, ইংরেজিতে দক্ষতা, বৈবাহিক অবস্থা ইত্যাদির ওপর ভিত্তি করে পয়েন্ট পাওয়া যাবে। বেশি পয়েন্ট অর্জনকারীদের ভিসা আবেদনের জন্য আমন্ত্রণ জানাবে অভিবাসন বিভাগ।

তবে আমন্ত্রণ পাওয়া মানেই ভিসা মঞ্জুর নিশ্চিত হওয়া নয়। আমন্ত্রণ পাওয়া মানে প্রার্থী পেশাদার হিসেবে যোগ্য। অস্ট্রেলিয়ার প্রবেশের সব আবশ্যিক শর্ত প্রার্থী কর্তৃক পূরণ হলে তবেই মিলবে সাবক্লাস ৪৯১ ভিসা।

এ ভিসার তথ্য অভিবাসন বিভাগের ওয়েবসাইটে <www.immi.homeaffairs.gov.au> হালনাগাদ করবে অভিবাসন বিভাগ। এ ছাড়া এই ভিসায় মনোনীত পেশায় পূর্ণকালীন চাকরির সুযোগ থাকবে হবে। সেই সঙ্গে তিন বছরের বেশি পুরোনো নয়, এমন স্কিল অ্যাসেসমেন্ট ও ইংরেজি দক্ষতার সার্টিফিকেট থাকতে হবে।

ভিসার মেয়াদ পাঁচ বছর। নতুন ভিসায় থাকছে পাঁচ শরও বেশি পেশা। ফলে, আরও নতুন নতুন পেশায় অস্ট্রেলিয়ায় আসার সুযোগ তৈরি হতে চলেছে। সে সঙ্গে দেশটিতে অস্থায়ী বসবাসকারীদের অনেকেরও স্থায়ী বসবাসের জন্য আবেদনের সুযোগ তৈরি হবে।

সাবক্লাস ৪৯৪ ভিসার পেশা তালিকা প্রকাশ
অভিবাসন বিভাগ নতুন সাবক্লাস ৪৯৪ দক্ষ স্পনসরড (আঞ্চলিক) ভিসার পেশাগুলোর তালিকা ঘোষণা করেছে। ৪৯৪ ভিসাটি বর্তমান সাবক্লাস ১৮৭ (আরএসএমএস) ভিসার স্থলে প্রতিস্থাপন হবে। আগে প্রতিবছর ৯ হাজার ভিসা প্রদানের ঘোষণা দিলেও এখন ১০ হাজার ভিসা বরাদ্দের ঘোষণা এসেছে। নতুন সাবক্লাস ৪৯৪ ভিসা পয়েন্ট টেস্টভিত্তিক ভিসা নয়। অস্ট্রেলিয়ার কোনো অঞ্চলের প্রতিষ্ঠান এ ভিসায় কাউকে মনোনীত করলে অর্থাৎ কোনো ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান চাকরি প্রদান করলেই এ ভিসায় আবেদন করতে পারা যাবে।

এ ছাড়া দেশটির আঞ্চলিক শহরে ইতিমধ্যে যেসব অভিবাসী বসবাস করছেন, তাঁরাও রাজ্য মনোনয়ন ছাড়াও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের স্পনসর করতে পারবেন আলাদাভাবে।

পার্থ ও গোল্ডকোস্ট এখন আঞ্চলিক শহর
নতুন ভিসাগুলোয় অস্ট্রেলিয়ার যেকোনো রাজ্যের আঞ্চলিক শহরে আবেদন করা যাবে। আগের ঘোষণায় দেশটির সিডনি, মেলবোর্ন, পার্থ, ব্রিসবেন ও গোল্ডকোস্ট মহানগর এলাকায় বসবাসকারীরা এ ভিসায় আবেদন করার যোগ্য ছিলেন না। কিন্তু পরবর্তী সময়ে পার্থ ও গোল্ডকোস্ট মহানগরকে আঞ্চলিক শহর ঘোষণা করা হয়েছে। অর্থাৎ পার্থ ও গোল্ডকোস্টে বসবাসকারীরাও এখন এ ভিসায় আবেদন করতে পারবেন।

নতুন এ ভিসাগুলো সম্পর্কে অভিবাসন বিভাগ এ সপ্তাহেই আরও বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করবে।

কাউসার খান: অভিবাসন আইনজীবী, সিডনি, অস্ট্রেলিয়া।  সৌজন্যে: প্রথম আলো