Home » অ্যাডভেনচার ট্রাভেল (page 4)

অ্যাডভেনচার ট্রাভেল

মেঘ-কুয়াশার মায়াবী ‘সাজেক ভ্যালি’

আব্দুল্লাহ আল সাফি দেশের ভ্রমণ পিপাসু মানুষদের কাছে বর্তমান সময়ের আলোচিত স্পট হচ্ছে ‘সাজেক ভ্যালি’। দৃষ্টি নন্দন প্রাকৃতিক পরিবেশের কারণে অনেকে এই স্পটকে ভারতের দার্জিলিং এর সঙ্গে তুলনা করে থাকেন। রাঙামাটি জেলায় অবস্থিত বাঘাইছড়ি উপজেলার একটি ইউনিয়ন সাজেক। সাজেকের অবস্থান রাঙামাটিতে হলেও যাতায়াতের সহজ পথ খাগড়াছড়ি দিয়ে। খুব কাছ থেকে মেঘ দেখা আর উচুঁ থেকে চারিদিকের পাহাড়ী এলাকা দেখার সুযোগ ...

বিস্তারিত »

বরফের রাজ্য মানালি

মো. ইমরুল কায়েস শিশির হিমালয়কে বলা হয় পৃথিবীর তৃতীয় মেরু। আর সেই উপত্যকার বরফ রাজ্য হলো মানালি। প্রকৃতি তার সব সুন্দর যেন এখানে ঢেলে দিয়েছে পাহাড়ের কোণে কোণে। যাঁরা ঠান্ডা আবহাওয়া ভালোবাসেন, তাঁদেরও হাড় কেঁপে উঠবে মানালিতে বেড়াতে এসে। আর পাহাড়ের গায়ে বরফের শুভ্র আল্পনা, সঙ্গে মেঘের আনাগোনা আপনাকে প্রতিমুহূর্তে মুগ্ধ করবে। শিমলা বেড়াতে এসে বরফ রাজ্য মানালি দেখব না, ...

বিস্তারিত »

কাইক্ষ্যন ঝরনার পথে

মোজতাবা নাদিম বর্ষাকালে বান্দরবান সেজে ওঠে এক অপরূপ সাজে। বৃষ্টির কারণে পাহাড় বেয়ে নেমে আসে বেশ কিছু নাম না জানা নানা রকম ঝরনা। আর সৌন্দর্যকে উপভোগ করার জন্যই নানা প্রতিকূলতাকে উপেক্ষা করে পাহাড়ে ছুটে যাওয়া। কিছুদিন আগে বর্ষাকালেই দেখা হলো সেসব ঝরনার ছুটে চলা। কাইক্ষ্যন বান্দরবানে গহিনের এক ঝরনা। ভরা বর্ষায় অমিয়াখুমের রূপ দেখার আশায় চলে গেলাম বান্দরবান শহরে। সেখান ...

বিস্তারিত »

স্বচ্ছ জলে সবুজ বনে

মোছাব্বের হোসেন ভরা বর্ষায় কোথায় যাওয়া যায়—শুনেই সিলেটের বন্ধু, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শেরে আলম আমন্ত্রণ জানালেন সিলেটে যাওয়ার। জানালেন আবহাওয়াও চমৎকার। ২৮ জুলাই রাতে সিলেটের বাসে উঠলাম স্ত্রী আইরিন আসাদকে নিয়ে। সকালে গিয়ে পৌঁছালাম। থাকার ঠিকানা সিলেট সার্কিট হাউসে। জানালা দিয়ে সুরমা নদীতে চোখ রাখতেই দেখি ঝিরঝিরি বৃষ্টি। মনটা কিছুটা দমে গেলেও আশা ছাড়লাম না। কিছুক্ষণ পরে বৃষ্টি থেমে গেলে মেঘলা ...

বিস্তারিত »

কুকিমনের চূড়ায় পাংখোয়া পল্লী

সমির মল্লিক পাংখোয়া পল্লী ২৫টি পাংখোয়া বসতি নিয়ে আকাশ ছুঁয়ে যেন দাঁড়িয়ে আছে। ক্যাথলিক আর ব্যাপ্টিস্ট- দুটি গির্জা আছে পাড়ার শুরু আর শেষ প্রান্তে। পাহাড়ের কোল ঘেঁষে দণ্ডায়মান দোতলা মাচাং ঘরগুলো, সহসাই যেন এখানে ধরা দেয় মেঘের দল। যতক্ষণ পাড়ায় ছিলাম পুরো সময় মেঘ-বৃষ্টি-বাতাসের অবগাহন। পাংখোয়া পল্লীর চারপাশে তেঁতুল, বটবৃক্ষ, নারকেল গাছের প্রাকৃতিক বেষ্টনী। ধবধবে জ্যোৎস্নায় এমন একটি পাড়ায় রাতযাপনটা ...

বিস্তারিত »

তুরং ছড়ার পথে

মো. জাভেদ হাকিম বৃষ্টিভেজা গভীর রাত। আমাদের গাড়ি ছুটছে সুনসান নিরিবিলি রাজপথ ধরে। বাসের একঘেয়ে যান্ত্রিকতা ছাড়া সব নিশ্চুপ। তবু কেন জানি ঘুম আসে না চোখে। অগত্যা সারা রাত সহযাত্রীদের সঙ্গে চলল নানা গপসপ। একরকম নির্ঘুম রাত কাটিয়ে সকাল ৯টার মধ্যে পৌঁছে যাই সিলেটের বাদাঘাট। আগে থেকেই সেখানে আমাদের জন্য নোঙর করা ছিল বিশাল এক বালুর কার্গো। সেটা এতটাই বিশাল ...

বিস্তারিত »

সিলেটের ‘দ্বিতীয় বিছনাকান্দি’

দিব্য জ্যোতি সী সারি সারি নীল পাহাড়ের কোলে পাথর বিছানো বিস্তৃত এলাকায় জলের ছোটাছুটি। পাহাড়ের বুক চিরে বের হয়ে আসা ঠান্ডা পানির স্রোত, যা আপনাকে দুই হাত প্রসারিত করে আলিঙ্গন করবে সব সয়মই। বলছি না বিছনাকান্দির কথা। এতদিনে বিছনাকান্দি হয়তো আপনাদের ঘুরে আসা হয়েছে অনেকবার। এবার ঘুরে আসতে পারেন বিছনাকান্দির চেয়েও সুন্দর নতুন আরেকটি পর্যটনকেন্দ্র। প্রকৃতির সৌন্দর্যে শোভিত অপরূপ এই ...

বিস্তারিত »

শিলং-চেরাপুঞ্জি ভ্রমণ এখন আরো সহজ

কবিগুরু রবীন্দ্র্রনাথ ঠাকুর বলেছিলেন, ‘দেখা হয় নাই চক্ষু মেলিয়া, ঘর হতে শুধু দুই পা ফেলিয়া, একটি ধানের শীষের উপর একটি শিশির বিন্দু…।’ সিলেট থেকে শিলং আর চেরাপুঞ্জি ঘুরতে যাওয়ার বেলায় সম্ভবত কবিগুরুর এ কথাটি একেবারেই সত্যি। সিলেট থেকে মাত্র তিন ঘণ্টা দূরত্বের পথ শিলং। ছোটবেলায় জাফলংয়ে যখন ঘুরতে যেতাম তখন দেখতাম দুটি পাহাড়ের মিলন ঘটিয়েছে একটি সুন্দর ব্রিজ। মা-বাবা দেখিয়ে ...

বিস্তারিত »

কোরবানির ছুটিতে সাজেকে গ্রুপ ভ্রমণ

মেঘের চাদরে মোড়ানো পাহাড়। সবুজ বৃক্ষরাজি ঢেকে আছে ধবধবে সাদা কুয়াশায়। বিশাল বিশাল গাছপালা। অজগর সাপের মতো আঁকাবাঁকা আর উঁচু-নিচু রাস্তা। সুউচ্চ পর্বত। ভোরসকালে সূর্যোদয়ের দৃশ্য কোনটা নেই সাজেকে? খাগড়াছড়ি শহর থেকে দীঘিনালা, তারপর বাঘাইহাট হয়ে সাজেক। পুরো রাস্তাটাই অপূর্ব। আশপাশের দৃশ্য বড় মনোরম। বেশির ভাগ সময় রাস্তাটাকে রোলার কোস্টারই মনে হয়। সবুজে মোড়ানো প্রকৃতির মাঝে আঁকাবাঁকা সর্পিল পথ বেয়ে ...

বিস্তারিত »

লোকচক্ষুর অন্তরালের ঝরনা হাম হাম

মুহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান লোকচক্ষুর অন্তরালের একটি ঝরনা। কেউ বলেন চিতা ঝরনা। কেউ হাম হাম, আবার কেউ হাম্মাম। রোমাঞ্চপ্রেমীদের ভ্রমণের একটি আদর্শস্থান। মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার সংরক্ষিত রাজকান্দি বনাঞ্চলের একদম গভীরে এর অবস্থান। ২০১০ সালের শেষের দিকে ঝরনাটি আবিষ্কার করেন একদল পর্যটক। দুর্গম জঙ্গলের এই ঝরনাটির উচ্চতা ১৬০ ফুট ধরা হলেও এ নিয়ে পরীক্ষিত কোনো মত নেই। তবে অনেকের মতে, দেশের ...

বিস্তারিত »