Home » পপুলার ডেস্টিনেশন (page 2)

পপুলার ডেস্টিনেশন

কাশ্মীর ভ্রমণের সহজ উপায়

:: সজল জাহিদ :: কাশ্মীর, ভ্রমণপ্রিয় সব মানুষের কাছেই এক আকর্ষণ। কাশ্মীরকে বলা হয়ে থাকে পৃথিবীর ভূস্বর্গ। কাশ্মীর আসলেই পৃথিবীর স্বর্গ। কাশ্মীর নিয়ে নানা রকম গল্প রয়েছে। আজকে আমরা শুধু কত সহজে, কোন কোন উপায়ে কাশ্মীর যাওয়া যায়, সেই গল্প বলব। আকাশপথে অনেকেই বিমানে কাশ্মীর যাওয়ার কথা শুনলে বা জানলে খরচের কথা মনে করে। হয়তো ঘাবড়ে যেতে পারেন। কিন্তু ব্যাপারটা ...

বিস্তারিত »

ঐতিহাসিক লালবাগ দুর্গ

পুরনো ঢাকার একটি ঐতিহাসিক স্থাপনা লালবাগ দুর্গ৷ ঢাকায় মুঘল আমলের স্থাপত্য নিদর্শনগুলোর মধ্যে এই দুর্গ অন্যতম৷ দুর্গের ভেতরের তিনটি মূল্যবান পুরাকীর্তি আজও হাজারো দর্শণার্থীর কৌতূহলের বিষয়৷ কেল্লা আওরঙ্গবাদ লালবাগ দুর্গের আগে নাম ছিল কেল্লা আওরঙ্গবাদ৷ ১৬৭৮ সালে ঢাকার সুবেদারের বাসস্থান হিসেবে এ দুর্গের নির্মাণকাজ শুরু করেন মুঘল সম্রাট আওরঙ্গজেবের তৃতীয় পুত্র আজম শাহ৷ নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার আগেই মারাঠা বিদ্রোহ দমনের ...

বিস্তারিত »

ঘুরে আসুন রাঙ্গামাটি

শীতকালকে পাহাড় ভ্রমণের আদর্শ সময় বলা হয়। তাই শীতকালে রাঙ্গামাটি হাজার পর্যটকের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে। এ শীতে সৌন্দর্যের রানি রাঙ্গামাটি আপনাকে হাতছানি দিয়ে ডাকছে। সুতরাং আর দেরি নয়, এখনি ঘুরে আসুন। শুভলং পর্বতপ্রেমীরা যেতে পারেন শুভলং। কিন্তু শীত মৌসুমে ঘুমিয়ে থাকে এখানকার পাহাড়ি ঝর্ণাগুলো। রিজার্ভ বাজার থেকে জাহাজে করে শুভলং যেতে হবে। শুভলংয়ের পাহাড়ের উপরে উঠে রাঙ্গামাটির প্রাকৃতিক দৃশ্য ...

বিস্তারিত »

দার্জিলিংয়ের সূর্যোদয়

:: রবিউল হাসান :: প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি দার্জিলিং। মানুষ আর প্রকৃতি মিলেমিশে যেন একাকার। এখানকার পাহাড়ের গায়ে গায়ে গড়ে উঠেছে জনপদ। চারদিক প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর। হিমালয়ের কোলে অসাধারণ সৌন্দর্যের মেঘের দেশ পাহাড়কন্যা দার্জিলিং। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরা দার্জিলিং শহরের অন্যতম দর্শনীয় স্থান টাইগার হিল। সূর্যোদয় দেখতে হাজারও পর্যটক ভোর ৪টা থেকে ছুটে আসতে থাকে টাইগার হিলের দিকে। টাইগার হিল ১০ হাজার ...

বিস্তারিত »

নাফাখুমের খোঁজে

:: সোহেল রানা :: আমি স্বপ্ন ছুঁয়ে হারিয়ে যাব প্রকৃতির কাছে। যেখানে মেঘেরা খেলা করে, পাহাড়ের চূড়ায়। শরীরে দোলা দেয়, জাগায় শিহরণ। বান্দরবানের নীলগিরি ও চিম্বুক পাহাড়ের বুক চিরে বয়ে চলা সাপের মতো আকা-বাকাঁ পথ যেন, প্রকৃতির স্বপ্ন রাজ্য। বান্দরবান শহর থেকে থানচি উপজেলা পৌঁছাতে জিপে (চাঁন্দের গাড়ি) করে ৪ ঘণ্টার পথ। এ পথের পথিক হলেই স্বপ্ন রূপ নেবে বাস্তবে। ...

বিস্তারিত »

কলাকোপা-বান্দুরার ঐতিহ্যের পাশে ‘মিনি কক্সবাজার’ মৈনট ঘাট

:: আব্দুল্লাহ আল সাফি :: রাজধানী থেকে বেশ কাছে ‘মৈনট ঘাট’ ভ্রমণপিপাসুদের হালের ক্রেজ। কক্সবাজারের দুধের স্বাদ মৈনটের ঘোলে মেটাতে দল বেঁধে ঘুরতে যান অনেকে। ইতিমধ্যে ‘মিনি কক্সবাজার’ নামে পরিচিতি পেয়েছে মৈনট ঘাট। সমুদ্রের উত্তাল ঢেউ না থাকলেও পদ্মার যে ঢেউ আছে, তা মন ভরিয়ে দেয়। যারা মৈনট ঘাট ঘুরতে যান, তারা সাধারণত ঢাকা থেকে ৩৫ কিলোমিটার দূরে ইছামতীর তীরে ...

বিস্তারিত »

নয়নজুড়ানো শ্রীমঙ্গল

:: চৌধুরী ভাস্কর হোম :: শীতের শুরুতেই পর্যটকরা ভিড় করতে শুরু করেছে সিলেটের শ্রীমঙ্গলে। পাহাড়ের কোলঘেঁষা সবুজময় শতবর্ষী চা বাগান যেনো প্রকৃতির অনন্য রূপ। ছোট বড় উঁচু-নিচু টিলা আর হরেক রকম গাছ-গাছালি। টিলার পাশ দিয়ে আঁকাবাঁকা সড়ক। সড়কের কোথাও উঁচু, কোথাও নিচু। যেনো দেশের ভেতর অন্যরকম এক দেশ। চায়ের দেশ, মেঘের দেশ, বন-বনানী, টিলা আর হাওরের দেশ এ শ্রীমঙ্গল। যেখানে ...

বিস্তারিত »

নীলাদ্রির নীল জলে

ঢাকা শহরের যান্ত্রিক ব্যস্ততায় হাঁপিয়ে উঠেছে মন। ভাবছেন, কোথায় ঘুরে আসা যায়? তাহলে ঘুরে আসতে পারেন সুনামগঞ্জের চুনাপাথরের হ্রদ নীলাদ্রি থেকে। যেখানে গেলে আপনি খুব কাছ থেকে উপভোগ করতে পারবেন প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য। নীলাদ্রি যাবার সঠিক সময় হলো বসন্ত। শীতের শেষে বা বসন্তের শুরুতেই ঘুরে আসতে পারেন সেখান থেকে। ভারতের কোলঘেঁষে চুনাপাথরের হ্রদ নীলাদ্রি। এর কোলে কিছু সময় কাটাতে পারলে ...

বিস্তারিত »

চিচিং ফাঁক তোজেংমা

:: মো. জাভেদ হাকিম :: নতুন এক ঝরনার নাম তোজেংমা। আর দে-ছুটের ভ্রমণ পাগলারা নতুন কোনো প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের টানেই ঘর ছাড়তে পছন্দ করে। ঢাকা থেকে রাতের বাসে ছুটি খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালার উদ্দেশে। যানজটমুক্ত রাস্তা থাকায় ভোর সাড়ে চারটার সময় পৌঁছাই সেখানে। গেস্ট হাউসে রুম বুকিং থাকায় বাড়তি ঝামেলা না করেই সোজা চলে গেলাম রুমে। গাইডের অপেক্ষায় কিছুটা সময় চিত্-কাত হয়ে ...

বিস্তারিত »

নাটোরের পদ্মরাজ্য

:: মর্তুজা নুর :: ফুলের রানী পদ্ম। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় তার ‘কেউ কথা রাখেনি’ কবিতায় বলেছিলেন ১০৮টি নীল পদ্মের কথা। নীল নয়, তবে গোলাপি পদ্মে ঢাকা বিলের দেখা কিন্তু পাবেন। প্রিয়াকে দেওয়া কথামতো ১০৮টি কেন, পারবেন অগুনিত পদ্ম তুলে দিতে তার হাতে। বিলে-ঝিলে সবুজ প্রান্তর আর পদ্ম ফুলের সৌরভ বিমোহিত করে মনকে। এখানে এলে বাতাসেও ছুঁয়ে যায় ফুলের ঘ্রাণ। নয়নাভিরাম এমন ...

বিস্তারিত »