Home » ভ্রমণ

ভ্রমণ

সাদা পাথরের ভোলাগঞ্জ আর বিছনাকান্দি খ্যাত উৎমাছড়া

রোপওয়ে, পাথর কোয়ারী আর পাহাড়ী মনোলোভা দৃশ্য অবলোকনের জন্য সিলেটের ভোলাগঞ্জে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক আগমন ঘটে পর্যটকদের। সিলেট থেকে ৩৩ কিলোমিটার দূরের ভোলাগঞ্জের রাস্তা দিয়েই ভারতের মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলংয়ে এক সময় লোকজন এ রাস্তা দিয়েই যাতায়াত করতো। কালের পরিক্রমায় এখানে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে রজ্জুপথ। নাম ভোলাগঞ্জ রোপওয়ে। দেশের সর্ববৃহৎ ভোলাগঞ্জ পাথর কোয়ারীর অবস্থানও এ এলাকায়। আর উৎমাছড়া! সাড়ি সাড়ি পাহাড়, ...

বিস্তারিত »

ঈদে চলুন শিলং-চেরাপুঞ্জি ঢাকা ট্যুরিস্টের সাথে

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বলেছিলেন, ‘দেখা হয় নাই চক্ষু মেলিয়া, ঘর হতে শুধু দুই পা ফেলিয়া, একটি ধানের শীষের উপর একটি শিশির বিন্দু…।’ সিলেট থেকে শিলং আর চেরাপুঞ্জি ঘুরতে যাওয়ার বেলায় সম্ভবত কবিগুরুর এ কথাটি একেবারেই সত্যি। সিলেট থেকে মাত্র তিন ঘণ্টা দূরত্বের পথ শিলং। ছোটবেলায় জাফলংয়ে যখন ঘুরতে যেতাম তখন দেখতাম দুটি পাহাড়ের মিলন ঘটিয়েছে একটি সুন্দর ব্রিজ। মা-বাবা দেখিয়ে ...

বিস্তারিত »

মস্কোতে মিরপুরবাসীর শীত আর মেট্রোতে বসে বই পড়া

:: শাকিলা সিমকী :: ঢাকার মিরপুরে ছিল আমার বসবাস। মেট্রো রেলের কার্যক্রমের কারণে মিরপুরের বাসিন্দাই জানে কতটা অসহনীয় ছিল ওখানকার রাস্তাঘাটে চলাচল। আমরা প্রায়ই মজা করে বলতাম,মিরপুরবাসী শুধু মঙ্গল গ্রহই নয়,নরকে গিয়েও খাপ খাওয়াতে পারবে। সুতরাং আমি মিরপুরবাসী হয়ে মস্কোর মতো জায়গায় সেটা পারবো এটাই স্বাভাবিক। রাশিয়ার মতো জায়গায় খাপ খাওয়ানো নিয়ে মিরপুরের সাথে কেন তুলনা করলাম অনেকের মনেই প্রশ্ন আসতে ...

বিস্তারিত »

মালয়েশিয়া ভ্রমণ করবেন যেসব কারণে

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এই দেশটির অসাধারণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও বৈচিত্র আপনাকে মুগ্ধ করবে। রেন ফরেস্ট থেকে শুরু করে মহানগরীর বিচিত্র রূপে আপনি বিমোহিত হবেন। ছবিঘরে থাকছে মালয়েশিয়া ভ্রমণের কয়েকটি কারণ। রাজধানী : রাজধানী কুয়ালালামপুরে ১৬ লাখ মানুষের বাস। এদের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন দেশের, বিভিন্ন গোষ্ঠীর মানুষ। এই শহরটি মধ্য-পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত বলে একে মালয়া বা পশ্চিম মালয়েশিয়া বলা হয়। এই শহরটি ...

বিস্তারিত »

Darjeeling-Kalimpong-Mirik Tour

একবার ভাবুন, আপনি ছুটছেন পাহাড়ি আঁকাবাঁকা পথ ধরে। জিপের ভেতর দাঁত কামড়ে বসে আছেন। পাল্লা দিয়ে চলছেন মেঘের সাথে। মেঘগুলো কখনো জিপের এক পাশের জানালা দিয়ে ঢুকছে। আর বের হচ্ছে অন্য পাশ দিয়ে। আপনি ছুটছেন প্রায় সাত হাজার ফুট উচ্চতার এক শহরের উদ্দেশে। বলছি দার্জিলিংয়ের কথা। হিমালয়ের কোল ঘেঁষে দাঁড়িয়ে থাকা ছবির মতো সুন্দর স্বপ্নপুরী এই দার্জিলিং। Package Details Duration ...

বিস্তারিত »

চলুন যাই আনন্দের শহর ঐতিহ্যের শহর কলকাতা

গোটা বিশ্বের ‘সিটি অব জয়’ হিসাবে খ্যাত শহর কলকাতা। এই শহর শুধুমাত্র ভারতের একটি মহানগর নয়, এ শহর ভারতের সামগ্রিক ইতিহাসের এক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। ১৭০০ সাল থেকে ১৯১২ পর্যন্ত কলকাতা ব্রিটিশ ভারতের প্রথম রাজধানী ছিল। তখন অবশ্য শহরটি ক্যালকাটা হিসাবে ব্রিটিশদের কাছে পরিচিতি ছিল। সময়ের সাথে সাথে কলকাতার সাংস্কৃতিক ও শৈল্পিক নানান পরিবর্তনের মাধ্য দিয়ে এগিয়ে গিয়েছে। ওই সময়কালে ...

বিস্তারিত »

দু’হাত বাড়িয়ে অপেক্ষায় মায়াবী সিকিম (নবম পর্ব)

:: লাচেন :: উত্তর সিকিমের ছোট্ট একটি গ্রাম লাচেন। চুংথাং থেকে লাচেন চু নদীকে সঙ্গে নিয়ে চড়াই পাহাড়ি পথে পৌঁছাবেন ৯,৪০০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত লাচেনে। চুংথাং থেকে দূরত্ব ২৯ কিলোমিটার। গুরুদোংমার যাত্রীরা এই লাচেনের হোটেলেই রাতে থাকেন। হাতে সময় থাকলে লাচেন গুহাটিও দেখে নিতে পারেন। কিছুটা ওপরে হওয়ার কারণে গুহা চত্বর থেকে গোটা গ্রাম ও উপত্যকার এক সুন্দর ছবি দেখতে ...

বিস্তারিত »

দু’হাত বাড়িয়ে অপেক্ষায় মায়াবী সিকিম (অষ্টম পর্ব)

:: ইয়ুমথাং :: ইয়ুমথাংয়ের আরেক নাম ‘ভ্যালি অব ফ্লাওয়ার’। ১১,৮০০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত এই স্থানটিতে এপ্রিল-মে মাসে ফুলের জলসা বসে। রাডোডেনড্রন, প্রিমুলাসহ আরও নানা রকমের ফুলে রঙিন হয়ে ওঠে উপত্যকা। শীতকালে আবার উপত্যকার অন্য রূপ দেখতে পাবেন। সাদা বরফে ঢেকে যায় পাহাড়, রাস্তাঘাট। মনে হয় বুঝি তুষারসাম্রাজ্যে এসে পড়েছি। লাচুং থেকে ইয়ুমথাংয়ের দূরত্ব ২৩ কিলোমিটার, আর গ্যাংটক থেকে ১৪১ কিলোমিটার। ...

বিস্তারিত »

দু’হাত বাড়িয়ে অপেক্ষায় মায়াবী সিকিম (সপ্তম পর্ব)

:: লাচুং :: এবার চলুন উত্তর সিকিমের পথে। পর্যটকদের মধ্যে খুবই জনপ্রিয় উত্তর সিকিমের এই সফর। ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত অত্যধিক বরফের জন্য। আর বর্ষাকালটা (জুলাই-আগস্ট) রাস্তা প্রায়ই ভেঙে যাওয়ার কারণে, এই সফর কিছুটা অনিশ্চিত হলেও, বছরের বাকি সময় দিব্যি উপভোগ করা যায় এই সফর। উত্তর সিকিমের ঘোরার জন্য আলাদা অনুমতি নিতে হবে। গ্যাংটকের হোটেলে ডকুমেন্টগুলো দিলে তারাই ব্যবস্থা ...

বিস্তারিত »

দু’হাত বাড়িয়ে অপেক্ষায় মায়াবী সিকিম (ষষ্ঠ পর্ব)

:: সিল্করুট :: পাকইয়ং দেখেও রোরাথাং হয়ে চলে আসতে পারেন পূর্ব সিকিমের এই সিল্করুট বা রেশমপথে। অতীতে এই পথেই বাণিজ্য চলত ভারতবর্ষ থেকে তিব্বত হয়ে মধ্য এশিয়া পর্যন্ত। ঐতিহাসিক এই পথের সৌন্দর্যও অতুলনীয়। রেশমপথের প্রবেশদ্বার বলা যেতে পারে লিংতামকে। চার হাজার ফুট উচ্চতায় অবস্থিত এই লিংতামের হোটেলে রাতে থেকেই ঘুরে নিতে পারেন এই সুন্দর পথটি। লিংতামে থেকে কাছাকাছির মধ্যে দেখে ...

বিস্তারিত »