Home » ভ্রমণ » ঢাকা (page 2)

ঢাকা

পঞ্চবটি

সাভারের নামাবাজার। পাঁচ বট মিলে একটি গাছ। লোকে ডাকে পঞ্চবটি। বহুকাল ধরে বহু ঘটনার সাক্ষী। দেখতে গিয়েছিলেন মাসুম সায়ীদ মাঝ রাত। নিঝুম চার ধার। জেগে আছি আমি। কারণ আমার ঘুম দরকার হয় না। আশ্বিন মাসের দুর্গাপূজা থেকে কার্তিক মাসের কালীপূজায় আমার এখানে মেলা চলে। তখন জায়গাটা থাকে সরগরম। বয়সীদের ভুলে ভরা জীবন। অল্প বয়সীরা আসে বুকভরা আশা নিয়ে। বলা ভালো, ...

বিস্তারিত »

বান্দুরা ভাঙ্গা মসজিদ গায়েবীভাবে নির্মিত হয়নি

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে সাত কিলোমিটার দূরে অবস্থিত নতুন বান্দুরা শাহী মসজিদ বা ভাঙ্গা মসজিদের। ৫০ শতাংশ জমির উপর তিন গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদটি এবং দুই শতাংশ জমির উপর রয়েছে মূল ভবনটি। প্রতিদিনই দূর দূরান্ত থেকে অসংখ্য লোক লোক আসে মসজিদটিতে নামাজ পড়তে। প্রতি শুক্রবার জুমার নামাজ আদায় করতে নবাবগঞ্জসহ এর পার্শ্ববর্তী দোহার, মানিকগঞ্জ, কেরানীগঞ্জসহ আশেপাশের কয়েকটি থানার নারী-পুরুষের সমাগম ...

বিস্তারিত »

ঢাকার পাশে দোহার-নবাবগঞ্জে একদিনের ট্যুর

রাজধানীর একেবারে পাশের উপজেলা নবাবগঞ্জ। আয়তন ২৪৪ দশমিক ৮০ বর্গ কিলোমিটার। এর উত্তরে সিঙ্গাইর উপজেলা, দক্ষিণে দোহার উপজেলা, পূর্বে কেরানীগঞ্জ, সিরাজদিখান ও শ্রীনগর উপজেলা, পশ্চিমে হরিরামপুর ও মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা। প্রধান নদী দুটি। ইছামতি ও কালীগঙ্গা। এছাড়া আওনার খাল ও ভাঙাভিটা খাল উল্লেখযোগ্য। নবাবগঞ্জ থানা গঠিত হয় ১৮৭৪ সালে এবং থানাকে উপজেলায় রূপান্তর করা হয় ১৯৮৩ সালে। রাজধানীর পাশের আর ...

বিস্তারিত »

লাল গোলাপের দেশে

সোনিয়া ইসলাম চারদিকে নিঝুম নিস্তব্ধতা। বসন্তের মিষ্টি রোদে ধানের সবুজ কচি শিষে আলোর ঝিকিমিকি। ধানখেতের আল ধরে হাঁটলাম দীর্ঘপথ। তারপর উঁচু রাস্তা। লাল মাটির মেঠোপথ। যেন হেঁটে চলেছি আবহমান গ্রামবাংলার ছবির ভেতর দিয়ে। মেঠোপথ পেরোলেই গোলাপের দেশ। শুনতে বহুদূরের পথ মনে হলেও ওই গোলাপের দেশ কিন্তু রাজধানীর খুব কাছেই। বুকে লাল ফুলের বন্যা নিয়ে তুরাগ নদের কোলে এক সবুজ দ্বীপ ...

বিস্তারিত »

ঢাকার পাশে ছোট্ট কক্সবাজার ‘মৈনট ঘাট’

আমরা সাধারণত পরিচিত জায়গা ছাড়া ঘুরতে যাওয়ার কথা চিন্তা করতে পারি না। নিরাপত্তার কারণেও আমরা অনেক জায়গায় যেতে চাই না। যান্ত্রিক নগরী ঢাকার আশেপাশে ঘুরার জায়গার সীমাবদ্ধতার কারণেও ছুটির দিনগুলো অনেকেই ঘুমিয়ে কাটায়। ছুটির দিনে অথবা কর্মব্যস্ততার ফাঁকে চাইলে ঘুরে আসতে পারেন মিনি কক্সবাজার খ্যাত মৈনট ঘাট। ঢাকার খুব কাছেই পদ্মা নদীর উত্তাল ঢেউ দেখতে আর নৌকা ভ্রমণে যেতে পারেন ...

বিস্তারিত »

মোগল জলদুর্গ

অধ্যাপক এ কে এম শাহনাওয়াজ ঢাকায় মোগল সুবার রাজধানী হওয়ার পর থেকেই একটি বড় সংকট সুবাদারদের চিন্তায় ফেলে দেয়। ক্রমাগত জলদস্যুদের আক্রমণ আতঙ্কিত করে তুলেছিল নগরবাসীকে। পর্তুগিজ ও মগ জলদস্যুরা সমুদ্র তীরাঞ্চল থেকে ছিপ নৌকা নিয়ে মেঘনার বুক চিরে এগিয়ে আসত। ধলেশ্বরীর মোহনায় এসে ডানে ঘুরে ঢুকে পড়তো শীতলক্ষ্যায়। সুলতানি যুগে এরা লুঠতরাজ করত সোনারগাঁওয়ে। ঢাকায় মোগল রাজধানী স্থাপনের পর ...

বিস্তারিত »

ভাওয়াল রাজবাড়ী

ভাওয়াল রাজবাড়ী, বলা হয়ে থাকে এটি দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম জমিদারবাড়ী। আগের সময়ের মতো জমিদারি নেই, কিন্তু সেই আমলের জমিদারবাড়ীতে এখনো মিশে আছে জমিদারি। বাড়ির আঙিনায় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে অতীতের গল্পকথা। ভাওয়ালের জমিদারি বিলুপ্ত হলেও রয়ে গেছে সেই জমিদারবাড়ীটি। গাজীপুরের প্রাণকেন্দ্র ভাওয়ালের সেই জমিদারের জমিদারি ঘুরে দেখতে গেলে পাবেন পুরনো স্মৃতির বেমিশাল স্বাদ। সবুজ শ্যামল প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লালমাটির লীলাভূমি আর রাজা গাজীদের ...

বিস্তারিত »

ঢাকার অতিথি ম্যাট প্রেস্টন ও বিরিয়ানি ইলিশ

ম্যাট প্রেস্টনকে বেশি লোক চেনে মাস্টারশেফ অস্ট্রেলিয়ার বিচারক হিসেবে। তবে তাঁর প্রথম পরিচয় খাবার-সাংবাদিক। তিনি ঢাকা ঘুরে গেলেন সদ্য। সাড়ে পাঁচ দিনে ঢাকা চষে বেড়িয়েছেন মোটা-তাজা, ভোজনরসিক, হাসিখুশি মানুষটি। কিছু সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন শফিকুল হক ইংল্যান্ডে অনেক বাংলাদেশি শেফ দেখেছেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ায়ও দেখেছেন কয়েকজনকে। দেশটাকে কয়েকবারই দেখেছেন মানচিত্রে। দাওয়াতটা পেলেন হঠাৎ, হাতছাড়া করলেন না। রিভোলি কুকিজের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হয়ে ...

বিস্তারিত »

চক্রাকার বাসে হাতিরঝিল ভ্রমণ

হাসান আদিল জ্যামের শহর ঢাকা এ কথা রাজধানীর সবাই জানে। নানা চেষ্টা করেও এ সমস্যা থেকে মুক্তি মিলছে না নগরবাসীর। ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাস্তায় বসে কাঁটানো নগরবাসীর নিত্যদিনকার রুটিনে পরিণত হয়েছে। তবে তেজগাঁও, গুলশান, বাড্ডা, রামপুরা, মৌচাক ও মগবাজারের বাসিন্দাদের কাছে সেই সময় এখন অতীত। ম্রীয়মাণ হয়ে আসছে তাদের কাছে ‘জ্যামের শহর’ অপবাদ। জ্যাম আর নেই, সাথে আছে প্রকৃতির ছোঁয়া, ...

বিস্তারিত »

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের স্বাধীনতা জাদুঘর

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান থেকে ৭ মার্চ বাঙালিকে স্বাধীনতার মন্ত্রবাণী শুনিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। স্বাধীনতা জাদুঘর হয়েছে এ উদ্যানে। গত ২৬ মার্চ জাদুঘরটি যাত্রা শুরু করে। জাদুঘরসহ পুরো কমপ্লেক্সের স্থপতিদের একজন মেরিনা তাবাশ্যুম। তাঁর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন আতিফ আতাউর। ছবি তুলেছেন শেখ হাসান ও নাভিদ ইশতিয়াক তরু ১৯৯৭ সালে পাবলিক ওয়ার্ক ডেভেলপমেন্ট (পিডাব্লিউডি) স্বাধীনতা জাদুঘর ও স্বাধীনতা স্তম্ভ কমপ্লেক্স তৈরির একটি নকশা প্রতিযোগিতার ...

বিস্তারিত »