Home » ভ্রমণ » ভারত (page 10)

ভারত

মেঘের ওপাশে ঝরনা

মোজতাবা নাদিম দাঁড়িয়ে আছি দানবের জটার ওপর। দানব ডুবে গেছে নদীর পানিতে, আটকে গেছে তার জটা। শিলংয়ের এই পাহাড়টার পেছনে এমনই কাহিনি প্রচলিত। নদীতে ডুবে মরে যাওয়া দানবের জটাই নাকি আজকের এই পাহাড়। মাওট্রপ ভিউ পয়েন্ট জায়গাটার নাম। এখানে দাঁড়িয়ে দেখছি দূরে সিলেটের ভোলাগঞ্জ। সিলেটে বেড়াতে গিয়ে আগে দেখতাম ভারতের পাহাড়গুলো। এবার ভারতের মাটিতে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশ দেখা। আবারও একই আফসোস ...

বিস্তারিত »

অজন্তা ইলোরা পেঞ্চ

চন্দ্রাণী মজুমদার একযাত্রায় ইতিহাস, শিল্প আর অরণ্যছোঁয়া ভ্রমণকথা অরণ্য আর ইতিহাস একযাত্রায় ছোঁব বলে চললাম অজন্তা-ইলোরা আর পেঞ্চ। রাত ৯টা ৫৫-এর আজাদ হিন্দ এক্সপ্রেসে উঠলাম। পরদিন আবার এ সময়েই জলগাঁও পৌঁছনোর কথা। কিন্তু ট্রেন একটু লেট করায় আমরা জলগাঁওয়ের আগের স্টেশনে নেমে পড়লাম। সেখানে স্টেশনও সৌভাগ্যক্রমে বাসস্ট্যান্ডের একদম কাছে। আর্য হোটেলে রাতের মতো একটা আশ্রয় ও আহার মিলে গেল। পরদিন ...

বিস্তারিত »

ভারতের শ্বাসরুদ্ধকর সৌন্দর্যের ৭টি অজানা স্থান

দেশে বিদেশে ঘুরতে পছন্দ করার মতো মানুষের অভাব নেই। কিন্তু অনেকের কাছে সবচাইতে বড় সমস্যা হচ্ছে দূরত্ব, সময় এবং অর্থনৈতিক সমস্যা। সপ্তাহের ছয় দিন কর্মক্ষেত্রে কাটিয়ে অনেক দূরে কোথাও ঘুরতে যেতে পারেন না অনেকেই। আর টাকা পয়সার কথা ভেবে ইচ্ছা থাকলেও দেখা হয় না পৃথিবীর অপার সৌন্দর্য। তাই বলে কি একেবারেই ঘোরা হবে না? অবশ্যই হবে। পাশের দেশ ভারতেই এমন ...

বিস্তারিত »

ডুয়ার্সে পর্যটনের নতুন দুই ঠিকানা মালবাজারে

সব্যসাচী ঘোষ সবুজ জঙ্গল থেকে বার হচ্ছে হাতির দল। সন্ধের আগে পাহাড়ি নদীর ধারে পাথরে আসছে হরিণেরা। আর বর্ষার আকাশে মেঘ দেখে পেখম মেলেছে ময়ুরের দল। বনবাংলোর সামনে দাঁড়িয়ে কিংবা ঝুলবারান্দায় বসে এমন দৃশ্য উপভোগ করতে কার না মন চায়! তবে সে জন্য প্রাথমিক ঝক্কি হল বনবাংলোর বুকিং পাওয়া। আর তা পেলেও একরাতের ভাড়া বাবদ পকেট থেকে বেড়িয়ে যায় অন্তত ...

বিস্তারিত »

ঘুরে আসুন আগ্রা, দেখে আসুন তাজমহল

১৮৭৪ সালে ব্রিটিশ পর্যটক এবং রাজদূত এডওয়ার্ড লিয়ার আগ্রার তাজমহল দেখে বলেছিলেন, আজ থেকে বিশ্ববাসীকে দুটি শ্রেণিতে বিভক্ত করা হোক। একটা শ্রেণি যারা তাজমহল দেখেছে এবং আরেকটি শ্রেণি যারা দেখেনি। তার এই উক্তিটি ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে রয়েছে। তার উক্তির জন্যই নয়, আরও অনেক কিছুর জন্যই তাজমহল দেখে আসতে পারেন। মোঘল সম্রাট শাহজাহান কর্তৃক নির্মিত এই অনন্য স্মৃতিসৌধ সম্রাটের প্রিয়তমা স্ত্রী ...

বিস্তারিত »

তৃতীয় কেদার

বিতান সিকদার সান্দাকফু। প্রায় ১২ হাজার ফুট উচ্চতায় পশ্চিমবঙ্গের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ। বেশ কয়েক বছর আগে সেখানে দাঁড়িয়ে চন্দ্রালোকিত কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখে এক বাঙালি পর্যটককে বলতে শুনেছিলাম, ‘আজ মাংস-ভাত খাব!’ সেই মুহূর্ত থেকেই আমার বাঙালি ট্যুরিস্টের প্রতি অ্যালার্জি। আমার সহযাত্রী বন্ধু অভিজিৎ বলেছিল, ‘‘সবার দেখার ধরন এক নয়। তার উপর ছোকরা চাঁদের আলোয় পাহাড় দেখে ঘেঁটে গেছে— যাকে বলে চন্দ্রাহত! ক্ষমাঘেন্না করে ...

বিস্তারিত »

চেরাপুঞ্জি, শিলং, মেঘালয় ভ্রমণ

প্রাথমিক কিংবা মাধ্যমিকের ভূগোল বইয়ের একটি সাধারণ প্রশ্ন-পৃথিবীতে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয় কোথায়? উত্তর-ভারতের মেঘালয় রাজ্যের চেরাপুঞ্জিতে। এটুকু পর্যন্ত মোটামুটি সবার জানা। তবে অনেকেই জানেন না এই চেরাপুঞ্জি বাংলাদেশ থেকে কতদূর। ম্যাপ বের করে হিসাব-নিকাশ করে দেখবেন বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে চেরাপুঞ্জি সোজাসুজি কুড়ি কিলোমিটারেরও কম। বাড়ির পাশেই বিশ্বের বৃষ্টিবহুল এই এলাকা, সেখানে আষাঢ় কিংবা শ্রাবণের বৃষ্টি উপভোগ এক অসাধারণ অভিজ্ঞতা। চেরাপুঞ্জি ...

বিস্তারিত »

পাকদণ্ডীর আড়ালে প্রতীক্ষায় বার্মিওক

চেনা সিকিমের এক প্রায় অজানা গন্তব্যের সন্ধান দিলেন সন্দীপন মজুমদার। এনজেপি (নিউ জলপাইগুড়ি) স্টেশন থেকে চলেছি সিকিমের এক প্রায় অচেনা বিউটি স্পট বার্মিওকের পথে। পশ্চিম সিকিমের এই দিকটা হোটেল, রেস্তোরাঁ, বাড়িঘরের ভিড়ে এখনও ঘিঞ্জি হয়ে পড়েনি। হাজারো পর্যটকের পদচারণা, কোলাহল এখনও কলুষিত করতে পারেনি এখানকার পরিবেশকে। অন্য দিকে, কাঞ্চনজঙ্ঘার এক অনবদ্য রূপ দৃষ্টিগোচর হয় এখান থেকে। এই সব কিছু মিলিয়ে ...

বিস্তারিত »

বেড়ানোর অফ-বিট ঠিকানা জোড়া-পাহাড়ের গ্রাম চুইখিম

সব্যসাচী ঘোষ পাহাড়ের কোলে থাকতেই হলে আবার হোটেল কেন? কালিম্পঙের পাহাড়ি গ্রাম চুইখিম হোম-স্টের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। এখনও পর্যন্ত ১১টি বাড়ির মালিকরা হোম-স্টে ব্যবস্থা চালু করেছেন। তাতে সব মিলিয়ে একরাতে ৩০ জন পর্যটক থাকতে পারবেন। লাভা-লোলেগাঁও-এর নাম অনেকে শুনেছে। কিন্তু চুইখিম, সন্ন্যাসীদাঁড়া, বরবট, অ্যালবাং এখনও নতুন। অ্যালবাং পেরোলেই পৌঁছে যাওয়া যায় লোলেগাঁওয়ে। ৩১ নম্বর জাতীয় সড়ক লাগোয়া বাগরাকোট বাজার থেকে ...

বিস্তারিত »

মেঘ পাহাড়ের দার্জিলিংয়ে (দ্বিতীয় ও শেষ পর্ব)

রকিবুল হক রকি কাঞ্চনজঙ্ঘা, কাঞ্চন মন ঢাকায় গরমে, লোডশেডিংয়ে ঘুমিয়ে অভ্যাস, সেখানে হঠাৎ করে শীতের মধ্যে লেপ মুড়ি দিয়ে ঘুমটা হলো জম্পেশ। কখন যে রাত পেরিয়ে সকাল হয়ে গেল টেরই পেলাম না। ঘুম ভাঙল খালেদ সাইফুল­াহর ঠেলায়। চোখ মেলে দেখি সবাই হোটেল রুমের জানালা দিয়ে মাথা বের করে আছে। আমিও লাফ দিয়ে চলে গেলাম জানালায়। কি আশ্চর্য! এক অভাবনীয় দৃশ্য! ...

বিস্তারিত »